Short Love Story Bangla – পুলিশের সাথে প্রেম-৫

Short Love Story Bangla – পুলিশের সাথে প্রেম-৫: চোরের ওপরে বাটপারি করলে এমন দশাই হয়, হা হা হা, ! it’s not fair বোনু, ! কি করবো বল? আন ফেয়ার হয়েই গেছে, তবে তোরা কি গাধা হুমমমম? ! লোকটা দিলো আর তোরা হাত পেতে নিয়ে এলি? একবার চেক করে আসল নকলের ফারাক টা দেখতে পারলি না?

ওনার দাঁত কেলানো দেখেই তো তোদের বোঝা উচিত ছিল, যে ডাল মে কুছ কালা হ্যা, ! ঠিক বলেছিস বোনু এখন কি হবে? ! কি আর হবে?

জুতো চুড়ি করবি , ! মানে? ! গাধার গুষ্ঠি গেটে তো কিছু করতে পরলি না, তাই এখন জুতো চুড়ি করবি ও এক সাথে দুটোই উশুল করবি, ! থ্যাংকইউ বোনু উম্মাহহহহহ,উম্মাহহহহহহ, ! তার কিছুক্ষণ পরে মাম্মা, খালামনিরা এসে আমাকে ধরা ধরা করে নিচে নিয়ে যায়, আর আমার মন খারাপ হয়ে যায়, নিচে যেতেই আমাদের মুখোমুখি বসিয়ে দেয়

আর তখনি আমাদের চোখাচোখি হয়ে যায়, আর উনি মিষ্টি হাসি দিয়ে আমাকে চোখের ইশারায় বলেন, ! মন খারাপ করে আছো কেন? ! তখন আমি ওনার প্রশ্নের উওর না দিয়ে তাকে ভেংচি মেরে আমার ছেলে কে আমাদের সামনে বসিয়ে দেই, ! তারপর মাম্মা এসে আমার পাশে বসেন, আর ওমনি আমি কান্না করে দেই, ! পাগলি মেয়ে আমার এখনি কান্নাকাটি শুরু করেছ? বিয়ে হয়ে গেলে কি করবে মা?

জানিনা মাম্মা, ! মাম তুমি কান্নু কলো কেন? তুমি কান্নু কান্নু করলে আমি ও কান্নু করব্বো, ! দেখ মা ইহানের চোখ ও লাল হয়ে গেছো, জামাইয়ের মুখ ও কালো হয়ে গেছে, তুই কান্না করিস না মা, ! আচ্ছা মাম্মা আমি আর কাঁদবো না কেমন? ! হ্যা মা, ! আর তখনি আমার ইহান উঠে গিয়ে ইমানের চোখ চেপে ধরে বলে

পাপা বিয়ের আগে মাম কে দেখতে নাই, নুজুর লেগে যাবে, ! আর তখনি সবাই হা হা করে হেসে দেয়, ! আর আমার উনি চোখের ওপর থেকে হাত সরিয়ে আমাকে চোখ মেরে হা হা করে হেসে দেয়, ! তার কিছু সময় পরেই কাজি সাহেব আসেন এবং আমাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়ে যায়

বিয়ে শেষে সবাই আমাদের মিষ্টি মুখ করিয়ে দেয়, আর তখনি আমার আমার চাচা তো দেওর নীলয় এসে বলেন, ! ভাইয়া তোর বা পায়ের জুতো কোই? ! তখনি আমার উনি খেয়াল করে দেখেন, যে তার ডান পায়ে জুতো থাকলে ও বা পায়ের টা নেই, হা হা হা ! তখন উনি আমার মুখের দিকে তাকিয়ে বলেন

Short Love Story Bangla

Short Love Story Bangla

সোনা আমার বা পায়ের টা কোই? ! আমি নিয়ে বসে আছি দেখেননা? হা হা হা, ! আমার কথা শুনে বাড়ি শুদ্ধো লোক হাহা করে হেসে দেয়, আর তখনি রাফিন ও আকাশ ভাইয়া, জেসমিন, কেয়া ও আনিয়া এসে বলে, ! জিজু চোরের ওপরে বাটপারি কি আপনি শুধু একাই করতে পারেন? আমরা পারিনা

শালাবাবু, শালিকারা ইটস নট ফেয়ার? ! কি ফেয়ার নয় জিজু? তুমি তোমার বৌয়ের দিকে মন্ত্রমুগ্ধের মতো তাকিয়ে থাকলে আমরা কি বসে বসে বুড়োআঙুল চাটবো হুমমমম, ! না মানে, ! কি মানে মানে করছ? ওভাবে বৌয়ের দিকে হা করে তাকিয়ে থাকলে? জুতো কেন? আপনার জামা ও চুরি হয়ে যাবে, হা হা হা, ! ওদের কথা শুনে আবারো বাড়ি তে হাসির রোল পরে যায়, আর আমি ভিশন লজ্জায় পরে যাই, তখন আমার উনি বলে

তো এখন তোমাদের কি চাই হুমমমম? ! কি আবার? পঞ্চাশ হাজার টাকা দিলে হয়ে যাবে হুমমম? ! আমাকে কি পাগল বলে মনে হয় যে একটা জুতার জন্যে এতো গুলো টাকা দিবো? হা হা হা, ! জিজু আপনি পাগল না বরং আমরাই ছাগল ছিলাম যে গেটে দাড়িয়ে দেওয়া এিশ হাজার টাকা চেক না করেই নিয়ে নিছি

হা হা হা, তবে একটু কনসিডার করা যায় না নাকি? আমি তো তোমাদের জিজু তাই না? ! কনসিডার আর আপনাকে? নো, নেভার কাভি নেহি প্রথমবার ঠকিয়েছেন এবার ঠকাবেন না তার প্রমাণ কি?

আমি তোমাদের সত্যি কথাই বলছি, এবার আমি তোমাদের আসল টাকাই দিবো, ! তাহলে আমরা ও কনসিডার করবো জিজু বাট অনলি টেন থাউজেন টাকা ওক্কে, ! ওকে, দেন আমার উনি চল্লিশ হাজার টাকা ওনার পকেট থেকে বের করে দেয়, আর আমার ভাই বোনেরা আসল নকল চেক করে নেয়

তারপরে জেসমিন আমার গালে চুমু খেয়ে আমার ওনাকে বলেন, ! জিজু এ্যাকচুয়ালি চোরের ওপরে বাটপারি করার প্লান না তোমার বৌয়ের ছিল, হা হা হা, ! এ্যা? ! এ্যা না হ্যা তোমার বৌয়ের বুদ্ধি তেই আমাদের শুদ্ধি ঘটেছে জিজু, হা হা হা, ! জেসমিনের কথা শুনে আমার উনি আমার দিকে হা করে তাকিয়ে থাকে

ভালোবাসার গল্প

ভালোবাসার গল্প
Photo by Rogério Souza on Pexels.com

আর তখনি আমি তার মুখে রসগোল্লা পুরে দেই, আর ওমনি ক্যামেরা ম্যান আমাদের ক্যামেরা বন্দি করেন, তারপর আমাদের ফোটে সেশন শুরু হয়, ফোটো সেশন এর পরে আমার বিদায়ের ঘন্টা বেজে যায়, ! বিদায়ে আমার পাপা উনার হাতে আমার হাত রেখে বলেন

বাবা আমার মেয়ে কে আমি অনেক যত্নে রেখেছি, আশাকরি তুমি ও আমার মেয়ে কে অনেক যত্ন করে রাখবে, ! হ্যা পাপা অবশ্যই তোমার মেয়ের কোনো অযত্ন হবেনা আমি ওর অনেল যত্ন করবো, তারপর আমি কান্নাকাটি জুড়ে দেই, আর রাফিন ও আকাশ ভাইয়া আমাকে গাড়ি তে বসিয়ে দেয়

শশুড় বাড়ি পৌঁছতেই চাচী শাশুড়ি আমাকে আদর যত্ন করে বাসরে নিয়ে বসায় তখন ইমা আমাকে বলে, ! ভাবি ভয় পেয়ো না এটা তোমার শশুড়ের বাড়ি, আর আব্বুর খুবি ইচ্ছে ছিল যে তার বড় ছেলের বিয়ে ও বৌ ভাত এ বাড়িতেই হবে, তাই আমরা তোমাকে এখানে নিয়ে এসেছি, তবে হ্যা তোমার বাবার বাড়ি এখান থেকে বেশি দূরে না

এই জায়গা টা কোথায়? ! পুলিশ হেড কোয়াটারের পেছনে, ! ও আচ্ছা, ! আচ্ছা ভাবি আমি এখন আসি কারন একটু পরেই আমার ভাই তোমারর কাছে আসবে, হা হা হা, ! ইমা যেতেই আমি ভয় পেতে শুরু করি, কারন আমার বাল্যবন্ধু রিয়ার ক্লাস এইটে থাকতেই বিয়ে হয়ে গেছিল আর এখন ও তিন বাচ্চার মা ওর সাথে কথা হলেই ও আমাকে বলে আমার বয়সে তোর বিয়ে হলে তুই এখন ছয় বাচ্চার মা হতি, ! এ কেমন বিচার?

ওর তিনটা হলে আমার ছয় টা হবে এটা কি মগেরমুলুক নাকি যে কইলো আর হইয়া গেল? ! আর তখনি খট করে দরজা খোলার শব্দ হয়, ! আর আমি ভয় পেয়ে খাটের নিচে লুকোই, খাটের নিচে লুকোতেই আমার বর খাটের কাছে এসে আমাকে না পেয়ে গান গেয়ে গান গেয়ে বলে, ! মিলন হবে কতদিনে?

ও মিলন হবে কতদিনে? আমার মিষ্টি বৌয়ের ও সনে, ও আমার মিষ্টি বৌয়েরো সনে, ও বৌ লুকাইছো কোন খানে, ও বৌ লুকাইছো কেন খানে, আমাকে ছেড়ে গেছ তুমি কনে?

রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প

short love story bangla
Photo by Catalina Carvajal Herrera on Pexels.com

আমাকে ছেড়ে গেছ তুমি কনে এএএএএ, ! ফাজিল জানি কনে কারা আমি কি তোমাকে বলে লুকাবো হুমমম, ! তখনি খেয়াল করে দেখি আমার উনি আমাকে আলমারি তে, বাথরুমে,ও দরজার পেছনে খুঁজছে, হা হা হা, ! ওনার খোজাখুজি দেখতে দেখতে ঘুমিয়ে পরি আমি, ! ভোর রাতে চোখ খুলতেই দেখি আমি আমাদের বিছানায় শুয়ে এবং আমার উনি আমার আমার বুকে মাথা রেখে আমাকে তার বুকে জড়িয়ে ঘুমিয়ে আছে

তাই আমি তার মাথায় হাত বুলুয়ে দেই, তখন আমার উনি বলেন, ! তুমি আমাকে এতো ভয় পাও কেন? আমি কি তোমাকে খেয়ে ফেলবো হুমমম? ! আমি জানি তুমি এখনো প্রিপেয়ার নও, তাই আমি তোমাকে টাইম দিতে চাই, তুমি প্রিপেয়ার হলেই আমি তোমাকে ভালোবাসাবো তার আগে না

আল্লাহ আমি কতো বোকা আমার বর টা কতো ভালো যে আমাকে এতো টা বোঝে, অনেক ভাগ্য করে আমি এমন বর পেয়েছি তাই তাড়াতাড়ি চেষ্টা করবো নিজেকে আপনার জন্য প্রিপেয়ার করবো?

এই যে মিষ্টি বৌ আমার কি এতো ভাবছ হুমমম? ! কিছুনা গো, নামাজ পরবেননা? ! হ্যা আজান দিছে চলো, ! আসলেই লোক টা অনেক ভালো কোনে রাগ নেই কোনো বিরক্তির ভাব নেই, ! কি হলো? ! কিছুনা?

এই নাও ফ্রেশ হয়ে এই সাড়ি টা পরে আসো তারপর আমরা একসাথে ফজরের সালাত আদায় করবো কেমন? ! হ্যা, ! গোসল করে ফ্রেশ হয়ে এসে দুজনে একসাথে বসে সালাত আদায় করি, ! তারপর সকালে সবার জন্যা নিজের হাতে কফি করে আনি, ! তখন আমার ইহান বলে, ! মাম কাক্কে তুমার ধুম কেমন হইছে?

ভালো হইছে বাবা, ! আর তখনি সবাই আমার দিকে তাকিয়ে মৃদু মৃদু হেসে দেয়, ! তখন আমার চাচাতো ভাসুর নির্ঝর আমার কফির প্রশংসা করে আমার বরের কানে কানে বলেন, ! ভাই আমার সময় তো খাট ভেঙে নিচে পরে গেছিলাম, তোর সময় তো তেমন কিছুই হইলো না হা হা

ভাই তুই কি বোকা? তুই খাট ভাংছ বলে কি আমারো খাট ভাঙ্গা লাগবে হুমমমম? ! মানে? ! ভাই খাট ভাঙ্গার ভয়ে বৌ কে নিয়ে অন্য কোথাও গিয়েছিলাম, ! তাহলে তোর রাত অনেক ভালো কেটেছে তাই তো?

ইয়েস ব্রো, ! ইসসসসসসসস, আমার উনি কতো ফাজিল? কি সব বলে ছিছিছি, ! খাট ভাঙার ভয়ে আমাকে নিয়ে অন্য কোথাও ছিছিছি

চতুর্থ পার্ট পড়ুনঃপুলিশের সাথে প্রেম-৪

0 thoughts on “Short Love Story Bangla – পুলিশের সাথে প্রেম-৫”

Leave a Comment